banner

সাধারণ জ্ঞান (আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী) – জাতিসংঘ

Posted by: | Published: Monday, July 11, 2016 | Categories:
ওয়েব স্কুল বিডি : সুপ্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিয়ো। আজ তোমাদের এইচ এস সি সাধারণ জ্ঞান (আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী) থেকে – জাতিসংঘ ধারণা নিয়ে আলোচনা করা হলো

অনলাইন এক্সামের বিভাগসমূহ:
জে.এস.সি
এস.এস.সি
এইচ.এস.সি
সকল শ্রেণির সৃজনশীল প্রশ্ন (খুব শীঘ্রই আসছে)
বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি (খুব শীঘ্রই আসছে)
বিসিএস প্রিলি টেষ্ট

এইচ এস সি সাধারণ জ্ঞান (আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী) – জাতিসংঘ


জাতিসংঘের সংক্ষিপ্ত প্রোফাইল
নাম- United Nations (UN)
প্রতিষ্ঠা- ২৪ অক্টোবর, ১৯৪৫ (জাতিসংঘ সনদ কার্যকর)
প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য- ৫১
বর্তমান সদস্য- ১৯৩
সর্বশেষ সদস্য- দক্ষিণ সুদান (১৪ জুলাই ২০১১)
সদর দপ্তর- নিউইয়র্ক
ইউরোপীয় সদর দপ্তর- জেনেভা
মূল সংস্থা- ৬টি
অফিশিয়াল/দাপ্তরিক ভাষা- ৬টি
সচিবালয়ে ব্যবহৃত ভাষা- ২টি (ইংরেজি ও ফরাসি)
বর্তমান মহাসচিব- বান কি-মুন (দক্ষিণ কোরিয়া)

জাতিসংঘ গঠন
জাতিসংঘ গঠনের ৭টি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা বা পদক্ষেপ উল্লেখযোগ্য। এগুলো হল-
১. লন্ডন ঘোষণা
২. আটলান্টিক সনদ : ১৪ আগস্ট, ১৯৪১; তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট ও বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী উইন্সটন চার্চিল আটলান্টিক মহাসাগরে বৃটিশ নৌ-তরী ‘প্রিন্সেস অব ওয়েলস’-এ বিশ্ব শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য এক ঘোষণা দেন। এটিই আটলান্টিক সনদ নামে পরিচিত।
৩. মস্কো সম্মেলন
৪. তেহরান সম্মেলন
৫. ডাম্বারটন ওকস সম্মেলন
৬. ইয়াল্টা সম্মেলন
৭. সানফ্রান্সিসকো সম্মেলন : ২৫ এপ্রিল ১৯৪৫, সানফ্রান্সিসকো’তে ৫০টি দেশের প্রতিনিধিরা একটি সম্মেলনে যোগ দেন। ২৬ ‍জুন তারা ১১১ ধারা সম্বলিত জাতিসংঘ সনদ স্বাক্ষর করেন। ১৫ অক্টোবর সম্মেলনে অংশ না নেয়া প্রথম দেশ হিসেবে পোল্যান্ড জাতিসংঘ সনদে স্বাক্ষর করে। আর সনদটি কার্যকর হয় ২৪ অক্টোবর। অর্থাৎ সানফ্রান্সিসকো সম্মেলনে উপস্থিত না থেকেও জাতিসংঘ সনদ কার্যকর হওয়ার পূর্বেই তাতে স্বাক্ষর করে পোল্যান্ড। অর্থাৎ, সানফ্রান্সিসকো সম্মেলনে উপস্থিত রাষ্ট্র ৫০টি, কিন্তু সেই সম্মেলনে গৃহীত সনদে স্বাক্ষরকারী দেশ ৫১টি (পোল্যান্ড’সহ)।

জাতিসংঘ সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ তথ্য
জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠাকালিন সদস্য ছিল- ৫১ টি
সানফ্রান্সিসকো সম্মেলনে উপস্থিত সদস্য- ৫০ টি
জাতিসংঘ সনদ স্বাক্ষরিত হয়- ২৬ জুন, ১৯৪৫
জাতিসংঘ সনদের মূল স্বাক্ষরকারী দেশ- ৫১ টি
জাতিসংঘ সনদ কার্যকরী হয়- ২৪ অক্টোবর, ১৯৪৫ সালে
জাতিসংঘ দিবস- ২৪ অক্টোবর
জাতিসংঘের সদর দপ্তর- নিউইয়র্ক
জাতিসংঘের সদস্য নয়- তাইওয়ান, ভ্যাটিকান, কসোভো এবং ফিলিস্তিন
জাতিসংঘের স্থায়ী পর্যবেক্ষক- ভ্যাটিকান এবং ফিলিস্তিন
জাতিসংঘ সনদ স্বাক্ষরকারী সম্মেলনে (সানফ্রান্সিসকো সম্মেলনে) উপস্থিত না থেকেও যে দেশটি জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য হিসেবে পরিগণিত হয়- পোল্যান্ড
জাতিসংঘের বর্তমান সদস্য- ১৯৩
জাতিসংঘের সর্বশেষ সদস্য- দক্ষিণ সুদান
দক্ষিণ সুদান জাতিসংঘের সদস্য পদ লাভ করে- ১৪ জুলাই
জাতিসংঘ হতে স্বেচ্ছায় পদত্যাগকারী একমাত্র দেশ- ইন্দোনেশিয়া
ইন্দোনেশিয়া পদত্যাগ করে পুনরায় ফিরে আসে- ১৯৬৫
পূর্বে কোন দেশ জাতিসংঘের সদস্য ছিল বর্তমানে নেই- তাইওয়ান
তাইওয়ান চীনের নিকট জাতিসংঘের সদস্যপদ হারায়- ১৯৭১
বিশ্বের স্বাধীন দেশ হয়েও জাতিসংঘের সদস্য নয়- ভ্যাটিকান ও কসোভো

জাতিসংঘের সংস্থা
জাতিসংঘের মূল সংস্থা- ৬টি (বর্তমানে অবশ্য কার্যকর সংস্থা ৫টি । কারণ, ১৯৯৪ সালে পালাউ’র স্বাধীনতার পরপর অছিপরিষদ (Trusteeship Council) স্থগিত করা হয় ।)

সাধারণ পরিষদ
General Assembly
সাধারণ পরিষদের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়- লন্ডনের ওয়েস্ট মিনিস্টার হলে ।
সাধারণ পরিষদে প্রতিটি দেশের ভোট দেয়ার ক্ষমতা- ১টি
বাংলাদেশ সাধারণ পরিষদের সভাপতি নির্বাচিত হয়- ১৯৮৬ সালে
সভাপতিত্ব করেন- হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী
নিরাপত্তা পরিষদ
Security Council
নিরাপত্তা পরিষদ পরিচিত– স্বস্তি পরিষদ নামে
নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য সংখ্যা- ১৫ টি  (৫ টি স্থায়ী ও ১০ টি অস্থায়ী)
৫টি স্থায়ী রাষ্ট্র- যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ফ্রান্স ও চীন
১৯৬৫ সালের আগে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য ছিল- ১১ টি
নিরাপত্তা পরিষদের কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য কমপক্ষে- ৫ টি স্থায়ী সদস্যের ও ৯ টি অস্থায়ী সদস্য রাষ্ট্রের সম্মতি প্রয়োজন
ভেটো মানে- আমি এটা মানি না (না ভোট)
জাতিসংঘে ভেটো দানের ক্ষমতা আছে- নিরাপত্তা পরিষদের ৫টি স্থায়ী রাষ্ট্রের
বাংলাদেশ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য হয়- মোট ২ বার (১৯৭৮ ও ১৯৯৯)
২য় বার বাংলাদেশ (১৯৯৯ সালে নির্বাচিত, ২০০০-০১ মেয়াদে) সভাপতির দায়িত্ব পালন করে
সভাপতিত্ব করেন- আনোয়ারুল করিম চৌধুরী
অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদ
Economic and Social Council (ECOSOC)

আন্তর্জাতিক আদালত*
International Court of Justice
World Court
(ICJ)
জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক আদালত পরিষদের নাম- স্থায়ী সালিশী আদালত
আন্তর্জাতিক আদালতের সদর দফতরের নাম- শান্তি প্রাসাদ (হেগ, নেদারল্যান্ডস)
আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারক- ১৫ জন
আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারকদের মেয়াদ- ৯ বছর
আন্তর্জাতিক আদালতের বর্তমান প্রেসিডেন্ট- হিশাস ওয়াদা (Hisashi Owada)
সচিবালয়
Secretariat

অছি পরিষদ
Trusteeship Council
১৯৯৪ সালে পালাউ স্বাধীন হলে জাতিসংঘের এই সংস্থাটি স্থগিত (suspended) করা হয় ।

* ২০০২ সালে আন্তর্জাতিক অপরাধী আদালত (International Criminal Court) (ICC, ICCt) প্রতিষ্ঠা করা হয় । এটিও জাতিসংঘের আওতাভুক্ত, তবে তাদের কাজেকর্মে অনেকটাই স্বাধীন । এটি কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, মানবতা বিরোধী অপরাধ প্রভৃতির বিচার করে । তবে ২০০২ সালের ১ জুলাই যেদিন এটি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয় তার আগের কোন অপরাধ এই আদালতের আওতাধীন হবে না ।
ICC প্রতিষ্ঠা- ১ জুলাই ২০০২
ICC র সদর দপ্তর- হেগ, নেদারল্যান্ডস
ICC র সদস্য- ১১৬ (১ নভেম্বর থেকে ১১৭; ১ ডিসেম্বর থেকে ১১৮)
বাংলাদেশ ICC র সদস্য নয়/ চুক্তি স্বাক্ষর করেনি

UN Women : জাতিসংঘের সর্বশেষ অঙ্গসংস্থা
জাতিসংঘের সর্বশেষ অঙ্গসংস্থা (১৭তম)
অনুমোদন লাভ- ২ জুলাই ২০০৯
কার্যক্রম শুরু- ১ জানুয়ারি ২০১১
পুরো নাম/ আসল নাম- United Nations Entity for Gender Equlity and the Empowerment of Women
প্রধান- মিশেল ব্যাচলেট (চিলির প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট; জাতিসংঘের পরবর্তী উপমহাসচিব)
সদর দপ্তর- নিউইয়র্ক

জাতিসংঘের মহাসচিব
জাতিসংঘ মহাসচিবের মেয়াদ- ৫ বছর (প্রকৃতপক্ষে মহাসচিবের পদের নির্দিষ্ট কোন মেয়াদ নেই । তবে ঐতিহ্যগতভাবে মহাসচিব ৫ বছরের জন্য ১ বা ২ মেয়াদে নির্বাচিত হন)
জাতিসংঘের প্রথম মহাসচিব- ট্রিগভে লি (Trygve Lie) (নরওয়ে)
জাতিসংঘের একমাত্র মুসলমান মহাসচিব- কফি আনান (ঘানা)
মুক্তিযুদ্ধের সময় জাতিসংঘের মহাসচিব ছিলেন- উ থান্ট (মায়ানমার) (প্রথম এশীয় মহাসচিব)
জাতিসংঘের বর্তমান মহাসচিব- বান কি মুন (দক্ষিণ কোরিয়া)  (নির্বাচিত হন- ২০০৭ সালে)
জাতিসংঘের মহাসচিবদের মধ্যে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান- দ্যাগ হেমারশোল্ড(১৯৬১) ও কফি আনান(২০০১)
জাতিসংঘের যে মহাসচিব মরণোত্তর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান- দ্যাগ হেমারশোল্ড(১৯৬১)

জাতিসংঘে বাংলাদেশ

সদস্যপদ লাভ
  • ১৩৬তম সদস্য
১৯৭৪ (১৭ সেপ্টেম্বর)
UN-এর নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য (স্বস্তি পরিষদ)
  • মোট বার
  • ২য় বার বাংলাদেশ (১৯৯৯ সালে নির্বাচিত, ২০০০-০১ মেয়াদে) সভাপতির দায়িত্ব পালন করে
  • সভাপতিত্ব করেন আনোয়ারুল করিম চৌধুরী
১ম বার : ১৯৭৮ (১০ নভেম্বর)
২য় বার : ১৯৯৯ (১৪ অক্টোবর)
UN-এর সাধারণ পরিষদের সভাপতি
  • সভাপতিত্ব করেন হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী
১৯৮৬


জাতিসংঘ ঘোষিত শীর্ষ সম্মেলন

সম্মেলন স্থান সময়কাল
শিশু বিষয়ক বিশ্ব শীর্ষ সম্মেলন নিউইয়র্ক ১৯৯০
পরিবেশ উন্নয়ন সম্মেলন (ধরিত্রী সম্মেলন) রিওডি জেনিরো ১৯৯২
বিশ্ব মানবাধিকার সম্মেলন ভিয়েনা ১৯৯৩
আন্তর্জাতিক জনসংখ্যা উন্নয়ন সম্মেলন কায়রো ১৯৯৪
চতুর্থ বিশ্ব নারী সম্মেলন বেইজিং ১৯৯৫
পরিবেশ সম্মেলন+ নিউইয়র্ক ১৯৯৭
বর্ণবাদ বর্ণবৈষম্য বিরোধী বিশ্ব সম্মেলন ডারবান ২০০১

জাতিসংঘ ও নোবেল (শান্তিতে)
জাতিসংঘ মোট নোবেল পায়- ৮ বার
জাতিসংঘ/ জাতিসংঘের মহাসচিব নোবেল পায়- ২ বার
জাতিসংঘের অঙ্গসংস্থাগুলো নোবেল পায়- ৬ বার
জাতিসংঘের মোট- ৫টি অঙ্গসংস্থা নোবেল পেয়েছে (UNHCR, UNICEF, ILO, IAEA, IPCC)
জাতিসংঘের যে অঙ্গসংস্থা ২ বার নোবেল পেয়েছে- UNHCR

জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক বর্ষ
প্রতিবন্ধী বর্ষ- ১৯৮১
নারীবর্ষ- ১৯৮৪
আদিবাসী বর্ষ- ১৯৯৩

আন্তর্জাতিক জীববৈচিত্র্য বর্ষ        
আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক সৌহার্দ্য বর্ষ   ২০১০
আন্তর্জাতিক নাবিক বর্ষ

আন্তর্জাতিক যুব বর্ষ- ১২ আগস্ট ২০১০ থেকে ১১ আগস্ট ২০১১

আন্তর্জাতিক বন বর্ষ
আন্তর্জাতিক রসায়ন বর্ষ                                                        ২০১১
Int’l year for people of African Descent

International Year of Cooperatives
International Year of Sustainable Energy for All       ২০১২

International Year of Water Cooperation- ২০১৩

অনলাইন এ ক্লাস করুন একদম ফ্রী. ….। (প্রতিদিন রাত ৯টা থেকে ১০.৩০টা প্রযন্ত)
Skype id – wschoolbd.



Previous
Next Post »

আপনার কোন কিছু জানার থাকলে কমেন্টস বক্স এ লিখতে পারেন। আমরা যথাযত চেস্টা করব আপনার সঠিক উত্তর দিতে। ভালো লাগলে ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না।
- শুভকামনায় ওয়েব স্কুল বিডি
ConversionConversion EmoticonEmoticon